বাংলা সাহিত্যের অন্যতম কবি একুশে পদকপ্রাপ্ত, বৃহত্ত্বর নোয়াখালীর কৃতি সন্তান কবি বেলাল চৌধুরী স্মরণে বৃহত্ত্বর নোয়াখালী সাহিত্য পরিষদ এর উদ্দ্যোগে আগামী ০৫- মে, রোজ শনিবার, মৌমাছি কচিকাঁচার মেলা ভবনে সন্ধ্যা ০৬:৩০ মিনিট এক স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়েছে।

এক নজরে কবি বেলাল চৌধুরী

বেলাল চৌধুরী (জন্ম : ১২ নভেম্বর, ১৯৩৮, মৃত্যু ২৪ এপ্রিল, ২০১৮) বিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার্ধে আবির্ভূত একজন আধুনিক বাঙালি কবি যাকে ষাট দশকের সঙ্গে চিহ্নিত করা হয়। তিনি সাংবাদিক, প্রাবন্ধিক, অনুবাদক এবং সম্পাদক হিসাবেও খ্যাতিমান। কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি ২০১৪ সালে পেয়েছেন একুশে পদক।

তাঁর জন্ম ১৯৩৮ সালের ১২ই নভেম্বর বাংলাদেশের ফেনী জেলার ফেনী সদর উপজেলার অন্তর্গত শর্শদি গ্রামে। তাঁর পিতা রফিকউদ্দিন আহমাদ চৌধুরী ও মা মুনীর আখতার খাতুন চৌধুরানী। তিনি দীর্ঘকাল ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাস কর্তৃক প্রকাশিত ভারত বিচিত্রা পত্রিকাটির সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন।

উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ : নিষাদ প্রদেশে (১৯৬৬), আত্মপ্রতিকৃতি, স্থির জীবন ও নিসর্গ (১৯৭৬), স্বপ্ন বন্দী (১৯৮৫), জল বিষুবের পূর্ণিমা (১৯৮৫), প্রতিনায়কের স্বগতোক্তি (১৯৮৭), যাবজ্জীবন সশ্রম উল্লাসে (১৯৯৭), বত্রিশ নম্বর (১৯৯৭), কবিতার কমল বনে, ভালোবাসার কবিতা (১৯৯৭), যে ধ্বনি চৈত্র, শিমুলে (২০০৮) সেলাই করা ছায়া (২০০৯) ইত্যাদি।

বাড়ির পাশ দিয়ে চলে যাওয়া ট্রেনের শব্দ, কালো ধোঁয়ার উদ্গীরণ, কয়লার কুচি ও জলন্ত ফুলকি শৈশবে রেল ইঞ্জিনের ড্রাইভার হওয়ার স্বপ্ন জাগিয়ে দিয়েছিল শিশুচিত্তে। কল্পলোকের রাজপুত্তুরের হাত ধরে খাল বিল, ক্ষেতখামার, চাষি, ন্যাংটো ছেলেমেয়ের মাছ ধরা, আকাশে উড্ডীন চিল আর পাখ-পাখালির ওড়াউড়ি চিত্তে আলোড়ন তোলে। বন্ধুর প্রেমিকাকে লেখা চিঠির সূত্র ধরে কবিসত্তার জাগরণ। মা-র মুখ থেকে শোনা ভারত চন্দ্র, হেম, মধু, নবীন সেনের কবিতায় মগ্ন হয়ে কৈশোরে বেলাল চৌধুরী রচনা করেন কবিতা ‘কত চেনা’। পঞ্চাশ দশকে সাপ্তাহিক ইত্তেহাদে প্রকাশিত এ কবিতার মাধ্যমে কবিতাঙ্গনে তাঁর যাত্রা শুরু। বিচিত্র খেয়াল, রকমারি কাজ ও ভ্রমণপিপাসু মন তাঁর কবিতাকে  বহুমাত্রিকতা দিয়েছে।

 

সাহিত্য একাডেমী, নিউইয়র্ক কবি বেলাল চৌধুরী স্মরণে উৎসর্গ করে সাহিত্য আসর

 

উক্ত স্মরণ সভায় সকল কবি সাহিত্যিক,সাংবাদিক,সুধী,প্রিয় নাগরিকবৃন্দকে উপস্থিত থেকে স্মরণ সভাকে সফল ও স্বার্থক
করার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানানো হয়েছে

যোগাযোগ:

এডভোকেট দেলওয়ার হোসেন মিন্টু
আহব্বায়ক,
বৃহত্ত্বর নোয়াখালী সাহিত্য পরিষদ।
০১৭১২২৬৮৯৬০.