মিজানুর রহমান সোহেল, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : চলমান আইপিএল ক্রিকেট টুর্নামেন্টকে কেন্দ্র করে হবিগঞ্জে প্রতিনিয়িত জমজমাট জুয়ার আসর বসছে। কিশোর, যুবকসহ প্রাপ্তবয়স্করাও আসক্ত হয়ে পড়েছে এ নেশায়। আসক্তদের এ জুয়ার নেশায় অসংখ্য পরিবার নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। আর এমন ঘটনায় প্রতিনিয়তই অর্থসংক্রান্ত মামলাও বাড়ছে। পরিস্থিতি এমন ভয়াবহ পর্যায়ে পৌঁছেছে যাতে পুলিশ প্রশাসনও রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে। প্রতিদিনই একাধিক টিমে বিভক্ত হয়ে রাতভর বিভিন্ন এলাকায় তারা অভিযান চালাচ্ছে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকজনকে আটকও করা হয়েছে। তাতেও থামছে না জুয়া খেলা।

পুলিশের অভিযানের খবর ছড়িয়ে পড়লে শহর ও আশপাশের এলাকা থেকে তাদের কাছে অনেকেই জুয়ার আসরে খবর দিতে ছুটে আসছেন। অপরদিকে জুয়াড়িরাও সতর্ক হয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে সদর মডেল থানার ওসি ইয়াছিনুল হক জানান, আইপিএল খেলাকে কেন্দ্র করে কতিপয় জুয়াড়ি জেলা শহরসহ বিভিন্ন পয়েন্টে জুয়া খেলায় মেতে উঠেছে। প্রতিদিনই তাদের ধরতে বিভিন্ন স্থানে একাধিক টিমে বিভক্ত হয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। অভিযান অব্যাহত থাকবে।তিনি আরো জানান. ইতিমধ্যে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকজনকে আটক করে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো- শহরতলীর বড় বহুলা গ্রামের জুয়েল মিয়া (২৬), আবদুর রউফ (৩৫), রাজনগর এলাকার শিহাব উদ্দিন (২৩), উমেদনগর এলাকার রোহান মিয়া (২৮), মোহাম্মদ আলী (২০), পশ্চিম ভাদৈ এলাকার মনির মিয়া (৩৩), ফরহাদ মিয়া (১৮), নোয়াগাও জালালাবাদ গ্রামের রকিবুল ইসলাম (২৫), মোহনপুর এলাকার হেলাল উদ্দিন (২৬), হান্নান মিয়া (১৯), পারভেজ মিয়া (২৬), আনোয়ারপুর গ্রামের আব্দুল লতিফ (২৫), বানিয়াচং উপজেলার কুর্শা খাগাউড়া গ্রামের শাহজাহান মিয়া (৩২), একই উপজেলার মক্রমপুর গ্রামের রুবেল মিয়া (২৫) ও শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার দাউদনগর গ্রামের জুয়েল চৌধুরী (২৫)। তাদের সকলকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

জানা গেছে, জেলা শহরের উত্তর শ্যামলী, উমেদনগর, চৌধুরী বাজার খোয়াই মুখ, কামড়াপুর খোয়াই ব্রিজের উত্তর ও দক্ষিণাংশ, গরুর বাজার, রাজনগর, শায়েস্তানগর, ২নং পুল এলাকা, তেঘরিয়া খোয়াই ব্রিজ এলাকা, শহরতলীর বড় বহুলা, পইল, ভাদৈ, ধুলিয়াখালসহ বেশ কয়েকটি পয়েন্টে এ আইপিএল জুয়ার আসর বসে। এতে আসক্ত হয়ে পড়েছে কিশোর, যুবক থেকে শুরুকরে বিভিন্ন বয়সী মানুষ।